উত্তম? সে তো চিরযৌবনের দূত

Spread the love
  • 281
  •  
  •  
  •  
    281
    Shares

 

 

কথায় আছে শিল্পীর জন্ম আছে মৃত্যু নেই। স্রষ্টা সারা জীবন দিয়ে শুধু সৃষ্টি করেন এবং তার মধ্যে তিনি নিজে বেঁচে থাকেন এবং বাঁচিয়ে রাখেন তাঁর অমর সৃষ্টিকে।
বাংলা চলচ্চিত্রকে যিনি পথ দেখিয়েছেন, যিনি বাংলা চলচ্চিত্রকে হাত ধরে এতটা পথ নিয়ে এসেছেন এবং বিশ্বের দরবারে জায়গা করে দিয়েছেন তিনিই হলেন আমাদের সকলের প্রিয় ‘মহানায়ক’ উত্তম কুমার।

বিভিন্ন সময়ে দর্শকের সামনে উঠে এসেছে তাঁর বিভিন্ন পর্যায়ের ছবি। ফটোশুট করতেও যে তিনি বেশ পছন্দ করতেন তা ভালোই বোঝা যাচ্ছে।
সাধারণত উত্তম কুমারকে আমরা ধুতি-পাঞ্জাবিতেই দেখতে অভ্যস্ত। তবে বাঙালী অভিনেতা হিসেবে শারীরিক গঠন নিয়েও বেশ সতর্ক ছিলেন তিনি।

কখনও তিনি প্রেমিক কখনও জমিদার আবার কখনও খুব সাধারণ ঘরের ছেলে হিসেবে হাজির হয়েছেন দর্শকের সামনে। মন কেড়েছেন লক্ষ লক্ষ দর্শকের। মনে হত ক্যামেরার সঙ্গে তাঁর বহুকালের সখ্য।

চরিত্র নিয়ে গবেষণা করতে তিনি সব সময়ই পারদর্শী। তা করতে গিয়ে জীবনের কিছু বিশেষ মুহূর্তের ছবি উঠে এসেছে দর্শকের সামনে।

কোথাও তিনি চরিত্রের প্রয়োজনে অবসরের ভঙ্গিমায় দাঁড়িয়ে আছেন আবার কোনো কোনো ছবিতে তিনি জমিদার সাজে উপস্থিত হয়েছেন।

একটি ছবিতে তাঁকে ফুটবল প্র্যাকটিস করতে দেখা যাচ্ছে। কখনও তরুণ বালকের মত সিগারেটের ধোঁয়ায় মাদকতা এনেছেন আবার কখনও বন্ধুমহলে বসে পড়েছেন গল্পের ডালি নিয়ে।

প্রতিটি চরিত্রে যে তিনি কতটা সাবলীল তা বেশ বোঝা যায়। একটি ছবিতে তাঁকে দেখা যাচ্ছে কালো সানগ্লাস এবং কোর্টে। সাহেব সাজে তিনি এসে দাঁড়িয়ে আছেন অপূর্ব ভঙ্গিমায়।

আপনি বেঁচে থাকুন মহানায়ক। আমাদের মেধায় মননে আমাদের প্রত্যহিকতায় আর রোজ বেজে চলুক সে গান, “কে প্রথম কাছে এসেছে/ কে প্রথম চেয়ে দেখেছে/ তুমি না আমি…।”


Spread the love
  • 281
  •  
  •  
  •  
    281
    Shares